লাকসামে বাসাবাড়ি থেকে স্বর্নালংকার লুটে নিতে আসা দুস্কৃতিকারীদের চিনে ফেলায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক নারীকে গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (৮ মার্চ) গভীর রাতে পৌরসভার ঠাকুরপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় তার ছেলে আজ ৯মার্চ মঙ্গলবার লাকসাম থানায় প্রবীর আচার্য্য বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

জানা গেছে, শুক্লা রানী আচার্য্য (৫০) নামে ওই নারী একাই বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। রাত সাড়ে নয়টার সময় দর্জির কাজ শেষে স্বামী স্বপন আচার্য্য ও ছেলে প্রবীর আচার্য্য বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের সামনের দরজা ভেতর থেকে আটকানো। পেছনের দরজা বাইরে থেকে লাগানো। পরে ঘরে ঢুকে দেখেন শুক্লা রানীর মরদেহ খাটের উপরে আছে। আলমিরা খোলা। এতে রাখা প্রায় ৪ ভরি স্বর্ণালঙ্কার নেই। ওইসময় তাদের আত্ম চিৎকারে এলাকাবাসী জড়ো হয়। খবর পেয়ে লাকসাম ও মনোহরগঞ্জ সার্কেলের এএসপি মহিতুল ইসলাম, লাকসাম থানার ওসি নিজাম উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) সকালে ময়নাতদন্তের জন্য ওই নারীর লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজনরা আরো জানান, স্বর্নালংকার লুট করতে আসা দুষ্কৃতকারীদের চিনে ফেলায় গলায় রশি পেঁচিয়ে তাকে হত্যা করে লাশ খাটের উপর ফেলে রাখে। পরে দুস্কৃতিকারীরা সামনের দরজা আটকে পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।

লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আজ দুপুরে জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ওই নারীর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: