কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা যুবলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার বাছির খানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে সম্প্রতি জাতীয় টেলিভিশনে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়ে।

ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় বুড়িচং উপজেলার বিভিন্ন পরিবহন থেকে প্রতি মাসে পৌনে ৪ কোটি টাকার চাঁদাবাজি হচ্ছে। যার মুল হোতা যুবলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ বাছির খান।

ওই প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর দ্রুত সময়ে বিভিন্ন ফেইসবুক আইডির মাধ্যমে সোস্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হয়।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার সকালে বুড়িচং উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে যুবলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার বাছির খান।
সংবাদ সম্মেলনের ছবি ও ভিডিও চিত্র ফেইসবুকে আসলে বিভিন্ন মহলে সমালোচনা শুরু হয়।

যুবলীগ নেতা হয়ে সরকারি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কিভাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে এটা নিয়ে প্রশ্ন উঠে।

এ বিষয়ে বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিনা ইয়াছমিন মোবাইল ফোনে জানান, সংবাদ সম্মেলন আয়োজনের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। কেউ মিলনায়তন ভাড়াও নেয়নি। উপজেলা চেয়ারম্যান আখলাক হায়দার তাঁদের নিয়ে মিলনায়তনে প্রবেশ করে। তবে পরবর্তীতে তিনি শুনতে পেয়ে তাঁদের মিলনায়তন থেকে বাহির করে দেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: