কুবি প্রতিনিধিঃ খাগড়াছড়ির দীঘিনালাতে ৫ম শ্রেণী পড়ুয়া ছাত্রী কৃতিকা ত্রিপুরাকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে মৌন প্রতিবাদ ও মানববনন্ধন করেছে আদিবাসী ছাত্র সংসদ। মঙ্গলবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঁঠালতলায় এ মানববনন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

আদিবাসী ছাত্র সংসদের সভাপতি অমিয় চাকমার সঞ্চালনায় মানববনন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রবিউল আউয়াল চৌধুরী বলেন ‘আমরা সভ্য হচ্ছি ঠিকই, কিন্তু কোথাও কোথাও তার প্রভাব দেখা যায় না। খাগড়াছড়ির ৯ বছরের শিশুকে হত্যা কোন সভ্য প্রাণীর দ্বারা সম্ভব না।’ বক্তারা অভিযুক্তদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্যও সরকারের কাছে আহবান জানান।

মানববনন্ধনে আদিবাসী ছাত্র সংসদের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় শিক্ষার্থীরা কালো কাপড়ে মুখ বেঁধে ধর্ষণ ও নৃসংশভাবে হত্যার বিরুদ্ধে মৌন প্রতিবাদ করেন।

উল্লেখ্য, পিতৃহীন কৃত্তিকা ত্রিপুরা (পূর্ণা) দীঘিনালার নয় মাইল এলাকার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। গত ২৮ জুলাই টিফিনের সময় সে স্কুলের পার্শ্ববর্তী নিজের বাড়িতে দুপুরের খাবার খাওয়ার জন্য আসলে ওই সময় তার মা জুমের কাজে ব্যস্ত থাকায় বাড়িতে কেউ ছিল না। খেতে এসে সে আর স্কুল ফিরে যায়নি। পরে রাত ১১ টার দিকে তার ছিন্নভিন্ন লাশ উদ্ধার করা হয়।