কুমিল্লার চান্দিনায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে এক কলেজছাত্রী (১৭) মৃত্যু বরণ করেছে। শনিবার বিকালে চান্দিনা উপজেলার ভোমরকান্দি গ্রামের নিজ বাড়িতে মৃত্যু ঘটে তার। করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করা ওই কলেজছাত্রী পাশ্ববর্তী বরুড়া উপজেলার খোসবাস কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

বিজ্ঞাপন

নিহতের চাচা মাইজখার ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার সফিকুর রহমান জানান, গত ১৫-২০ দিন যাবৎ জ্বর-কাশিতে ভূগছিল সে। প্রাথমিকভাবে বাড়িতে চিকিৎসা নিয়ে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না ঘটলে এক সপ্তাহ পূর্বে রামমোহন বাজারের একটি ডায়গনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসক মাহবুবুর রহমান এর কাছে চিকিৎসা নেয়। সেখানে তার পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করা হয়। তারপরও জ্বর কমেনি, সাথে যুক্ত হয় নিওমোনিয়া।

ইউপি মেম্বার আরও জানান, শুক্রবার আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার মোবাইল নম্বরে ফোন করে বিষয়টি জানানোর পর তিনি একটি ইঞ্জেকশনের নাম বলে দেন এবং সেটি দিতে বলেন। শনিবার সকালে তিনি ফোন করে খোঁজখবর নিয়ে বলেন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে।

আমরা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কথামতো কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই এবং সেখানে তারা ভর্তি না রেখে করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। আমরা বাড়িতে আসার এক ঘণ্টা পর বিকাল ৪টা মৃত্যু ঘটে তার।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আহসানুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসার পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

প্রসঙ্গত, কুমিল্লার চান্দিনায় এ পর্যন্ত ৯জন আক্রান্ত হয়। এ ছাড়া করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে আরও এক ব্যক্তির মৃত্যু ঘটে।

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: