কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার গ্রামে বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে রাতে দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার, পুলিশ পরিদর্শক মো. মেজবাহ উদ্দিনসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর মা মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে অভিযুক্ত মাদরাসাশিক্ষক বদিউল আলম মুন্সির বিরুদ্ধে মামলার পর তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত বদিউল আলম মুন্সি উপজেলার রাজামেহার ইউপির কফিল উদ্দিন মুন্সির ছেলে এবং রাজামেহার ফাজিল মাদরাসার ইবতেদায়ী শাখার শিক্ষক।

মামলার বিবরণে কিশোরীর মা উল্লেখ করেন, বাড়িতে একা পেয়ে তার বাক প্রতিবন্ধী মেয়েকে ওই শিক্ষক ধর্ষণ করেন।

দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার জানান, বাক প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. বদিউল আলম মুন্সি নামে এক মাদরাসা শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কুমিল্লা জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে। ভুক্তভোগী ওই প্রতিবন্ধীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর জন্য পাঠানো হয়েছে।

সূত্রঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: