কুমিল্লায় অর্ধগলিত যুবকের লাশ উদ্ধার

মো. জাকির হোসেনঃ কুমিল্লার দাউদকান্দির সুন্দলপুর গ্রামের একটি কচুরীপানা ভর্তি খাল থেকে সোমবার সকালে স্থানীয়রা স্বপন মিয়াজী (৪২) নামের এক ব্যক্তির অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে। এর আগে গত ২৭ জুলাই রাতে সাদা পোষাকধারী একদল লোক তাকে ঘর থেকে মোবাইল ফোনে ডেকে বাইরে এনে আটকের চেষ্টা করলে স্বপন দৌড়ে পালিয়ে যেতে বাড়ির পাশের একটি খালে ঝাঁপ দেয়।

স্থানীয় বিভিন্ন সুত্রে জানা যায়,জেলার দাউদকান্দি উপজেলার সুন্দলপুর গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমান মিয়াজীর পুত্র সুন্দলপুর বাজারের মুরগী ব্যবসায়ী স্বপন মিয়াজী গত ২৭ জুলাই রাত আনুমানিক সাড়ে টায় দোকান বন্ধ কওে বাড়িতে আসে। পওে রাতের খাবারের সময় ৬/৭ জনের একদল সাদাপোষাকধারী তাকে বাড়ির সামনে থেকে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে আটকের চেষ্টা করে। তখন স্বপন আতœরক্ষার্থে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে বাড়ির পাশের খালে ঝাঁপ দেয়। এসময় সাদাপোষাকধারীরা চলে যায়। এরপর থেকেই স্বপনের কোন খোঁজ পাচ্ছিল না পরিবারের লোকজন। ২৯ জুলাই স্বপনের স্ত্রী রহিমা বেগম দাউদকান্দি থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেন। গতকাল সোমবার সকালে গ্রামবাসী খালের কচুরীপানা পরিস্কার করার সময় নিহতের লাশ ভেসে উঠে। নিহতের স্ত্রী ও স্বজনরা জানান,তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নাই। এরপরও ২৭ জুলাই রাতে সাদা পোষাকের একদল পুলিশ তাকে মোবাইলে ডেকে বাড়ির বাইরে নিয়ে গ্রেফতারের চেষ্টা করেছিল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন গ্রামবাসী জানান,নিহতের গোপনাঙ্গ ও মাথার পিছনে আঘাতের চিহ্ন ছিল। নিহত স্বপন সুন্দলপুর গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমান মিয়াজীর পুত্র। সোমবার সকাল ৯ টায় গ্রামবাসীর দেওয়া তথ্যেও ভিত্তিতে দাউদকান্দি থানা পুলিশের একটি দল এসে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। বিষয়টি জানতে দাউদকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)’র সরকারী মোবাইল নম্বওে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও মোবাইল বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি। তবে ওই থানার এসআই মোস্তফা কামাল লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,কুমেক হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ