কুমিল্লা নগরীর অভিজাত বিপণি বিতান ইস্টার্ন প্লাজায় ঢুকে দোকানের তালা ও সাটার ভেঙে ডা’কাতির চেষ্টাকালে চারজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। শনিবার রাত ৯টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

মার্কেটের দোকানিরা জানান, রাত নয়টায় তারা দোকান বন্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সেই সময় মার্কেটের নিচ তলায় কাপড়ের দোকানগুলোতে ৭/৮ জনের একটি সংঘবদ্ধ ডা’কাত দল দুর্ধর্ষ ডা’কাতির প্রস্তুতি শুরু করে। একে একে তারা পাঁচটি দোকানের তালা ভেঙে নগদ টাকা লুটপাট শুরু করে। এ সময় নিরাপত্তা কর্মীরা টের পেয়ে চিৎকার শুরু করলে মার্কেটের উপরের তলার দোকান মালিক, কর্মচারী ও আশেপাশের লোকজন এসে চারজনকে আটক করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ক্রেতা সেজে মার্কেটে অবস্থান নেয় ডা’কাত দলের সদস্যরা। অল্প সময়ের মধ্যে তারা মীম বস্ত্র বিতান, নীহা শাড়ী বিতান, বঙ্গশ্রী শাড়ী বিতান, ফ্যাশন বিডি, উর্মি বস্ত্র বিতান নামের পাঁচটি দোকানের তালা কেটে নগদ টাকা পয়সা লুটে নেয়।

গণপি’টুনিতে আটক চারজনই গুরুতর আ’হত হয়। রাত ১০টার দিকে কোতয়ালী মডেল থানা এসআই ইমাম হোসেনসহ পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এস আই ইমাম জানান, খবর পেয়ে জনতার হাতে আটক ডাকাত দলের চার সদস্যকে আমরা উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিচ্ছি। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

ইস্টার্ন প্লাজা দোকান মালিক সমিতির সেক্রেটারি মঞ্জুরুল আলম ভূইয়া বলেন, আমি ঘটনার সময় বাইরে ছিলাম। মার্কেটের দোকানদারকে কাছ থেকে খবর পেয়ে দ্রুত এসে দেখি মার্কেটের প্রহরী এবং অন্যান্য লোকজন চারজনকে আটক করেছে। পরে আমি চুরি হওয়া দোকানগুলো দেখে এই বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশকে জানাই।

তিনি জানান মার্কেটে দুর্ধর্ষ ডা’কাতির ঘটনায় কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, কুমিল্লা ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজায় দুর্ধর্ষ ডা’কাতির ঘটনায় মার্কেটের পক্ষ থেকে একটি ডা’কাতির মামলা করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: