ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লায় প্রতিহিংসায় আপন দেবরের ছেলেকে শ^াসরোধে হত্যার দায়ে হোসনেয়ারা বেগম (৩৫) নামে এক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে আদালত। এছাড়াও আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত। মঙ্গলবার কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ চতুর্থ আদালতের বিচারক নূরনাহার বেগম শিউলী এই রায় দেন।

যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত আসামি হোসনেয়ারা বেগম কুমিল্লা বরুড়া উপজেলার শাকপুর গ্রামের আবুল বাশারের স্ত্রী।

মামলার রায় সূত্রে জানা যায়, দেবর আবুল কাশের স্ত্রীর সাথে হোসনেয়ারা বেগমের পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে প্রতিহিংসা থেকে সাত (৭) বছরের শিশু ইব্রাহীম খলিলকে শ^াসরোধ করে হত্যা করা হয়। পরে ইব্রাহীমের মরদেহ বাড়ির পুরাতন ময়লার ট্যাংকিতে গুম করার চেষ্টা করে। আদালতের ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে হোসনেয়ারা বেগম হত্যাকা-ের বিষয়টি স্বীকার করেন।

>>আরো পড়ুনঃ  ব্রাহ্মনপাড়ায় মাদক সহ ওয়ারেন্টভুক্ত ৩ আসামী গ্রেফতার

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বরুড়া থানার ওসি আজম উদ্দিন আহম্মদ জানান, ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ বরুড়া উপজেলার শাকপুর গ্রামের প্রাবসী আবুল কাশেমের সাত বছর বয়সি শিশু ইব্রাহীম খলিল বিকেলে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। আত্মস্বজনসহ বিভিন্ন স্থানে বহু খোঁজা-খুঁজি করে। পরবর্তীতে ওই বছরের ২ এপ্রিল হত্যার তিনদিন পর বসত বাড়ির পুরাতন ময়লার ট্যাংকির ভিতর থেকে শিশু ইব্রাহীমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুর বাবা আবুল কাশেম বাদি হয়ে অজ্ঞাত একটি মামলা দায়ের করে। গত ২০১৮ সালের ৫ আগষ্ট হোসনেয়ারা বেগমকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ