কুমিল্লায় নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে কুমিল্লার ধর্মসাগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

তেইশ বছর বয়সী ওই ছাত্রীর নাম জান্নাতুল হাসিন। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভারসিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলোজি (বিইউবিটি) বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবসা প্রশাসনে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

হাসিন নগরীর ধর্মসাগর পশ্চিম পাড়ের বাসিন্দা ইদ্রিস মেহেদীর মেয়ে। ইদ্রিস মেহেদী নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সোমবার ঢাকা থেকে কুমিল্লার বাসায় আসেন হাসিন। কোনো কারণে তার মন খারাপ ছিল। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছে কম। মঙ্গলবার বেলা দেড়টার দিকে শ্যাম্পু কেনার কথা বলে বাসা থেকে বের হয় হাসিন। পরে বাড়ির পাশের গোল্ড সিলভার হোমসের নির্মাণাধীন নয়তলা আবাসিক ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করে।’

নির্মাণাধীন ওই ভবনটির পাশেই ১০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়। কাউন্সিলর মঞ্জুর কাদের মনি বলেন, ‘আমি অফিসে বসে ছিলাম। হঠাৎ জোরালো আওয়াজ শুনতে পাই। বেরিয়ে দেখি একটি মেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।’

প্রত্যক্ষদর্শী সাইফুল হাসান শিমুল বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলের পাশেই ছিলাম। শব্দ শুনে হাসিনকে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেই।’

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ারুল হক বলেন, ‘অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে ধারণা করা হচ্ছে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে এ ঘটনার পেছনে অন্য কোন কারণ আছে কি না তা খতিয়ে দেখছি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: