কুমিল্লা চান্দিনায় গণপিটুনিতে মেম্বার নিহত

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার চান্দিনায় ডাকাতির প্রস্তুতি কালে গণপিটুনিতে ডাকাত সর্দার ইসমাইল মেম্বার (৪৮) নিহত হয়েছে।

সোমবার (১৬ জুলাই) দিবাগত রাত পৌঁনে ২টায় উপজেলার মহিচাইল ইউনিয়নের বাতাবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইসমাইল হোসেন মাধাইয়া ইউনিয়নের কাশিমপুর গ্রামের মাহমুদ আলীর ছেলে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, রাত ১টার দিকে একদল ডাকাত বাতাবাড়ীয়া গ্রামের কৃষক চন্ডী বিশ্বাস এর বাড়িতে হানা দেয়। বাড়ির লোকজন ডাকাতির বিষয়টি টের পেয়ে চিৎকার করে। এতে আশে-পাশের লোকজন ছুটে আসলে ডাকাতদল পিছু হটে।

এক পর্যায়ের গ্রামবাসী ডাকাত সর্দার ইসমাইল হোসেনকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে চান্দিনা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

মাধাইয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অহিদ উল্লাহ জানান, ডাকাত সর্দার ইসমাইল হোসেন এর পৈত্রিক নিবাস মাধাইয়া ইউনিয়নের কাশিমপুর গ্রামে। ডাকাতি পেশা ছাড়তে না পারায় স্থানীয়দের চাপে এলাকা ছাড়া হয়ে পাশ্ববর্তী মহিচাইল ইউনিয়নের বাতাবাড়িয়া গ্রামে বসবাস শুরু করে।

বাতাবাড়িয়া গ্রামের ভোটার হয়ে ২০০১ সালের পর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মহিচাইল ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচিত হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাতাবাড়িয়া গ্রামের একাধিক বাসিন্দা জানান, ডাকাত ইসমাইল মেম্বার পদে নির্বাচন করার অনেক পূর্ব থেকেই এলাকায় চুরি ডাকাতি ও নারী নির্যাতনের মতো জঘন্য অপকর্ম করে আসছিল। ভোটে প্রার্থী হওয়ার পর ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য হুমকি পর্যন্ত দিয়েছিল। মেম্বার হওয়ার পরও থেমে ছিল না তার ডাকাতি। নিজের পাঁচ সন্তান ও ডাকাতির সাথে জড়িত। গণপিটুনিতে তার মুত্যুর খবরে এলাকাবাসী স্বস্তির নি:শ্বাস ফেলছে।

এ বিষয়ে চান্দিনা থানা অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ সামছুল ইসলাম জানান, ডাকাত সর্দার ইসমাইল হোসেন এর বিরুদ্ধে ডাকাতি ও নারী নির্যাতনসহ চান্দিনা থানায় ৩ টি মামলা রয়েছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।

সূত্রঃ নয়া দিগন্ত

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ