কুমিলা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি বলেছেন, বাঙ্গালী জাতির ইতিহাসে সবছেয়ে গৌরবৌজ্জল অধ্যায় ‘স্বাধীনতা’ এসেছিল বঙ্গবন্ধু আর আওয়ামী লীগের হাত ধরে। এদেশের সাধারন মানুষ এ যাবতকালে গৌরবময় যা কিছু পেয়েছে তা আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার কন্যা শেখ হাসিনার মাধ্যমেই পেয়েছেন। কুমিল্লার আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জিবিত। সাংগঠনিক শক্তিতে কুমিল্লা মহানগরের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনকে শক্তিশালী করে কুমিল্লাকে শেখ হাসিনার দূর্গে পরিনত করতে হবে। কৃষকলীগকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে হবে। কৃষি বলতে আজ শুধু চাষাবাদ বুঝায় না, পোল্ট্রি,ডেইরী,ফিশারীজ সহ সকল খামার ভিত্তিক উৎপাদন -ই আজ কৃষির অন্তরভূক্ত। এসব পেশার মানুষকে সংগঠিত করতে হবে।

শনিবার দুপুরে নগরীর মুন্সেববাড়ী কার্য্যলয়ে নবগঠিত কুমিল্লা মহানগর কৃষক লীগের আহবায়ক কমিটির সাথে ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়কালে হাজী বাহার এমপি এসব কথা বলেন। নবগঠিত কুমিল্লা মহানগর কৃষক লীগের আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দ হাজী বাহার এমপির সাথে ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে নগরীর রামঘাটলাস্থ দলীয় কার্যলয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও নগর উদ্যানে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু মূর‌্যালে পুস্পস্তবক অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় কুমিল্লা মহানগর কৃষকলীগের আহবায়ক মো.খোরশেদ আলম,যুগ্ম আহবায়ক কাজী সোহেল হায়দার ও জোনায়েদ শিকদার তপুসহ সকল সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার কোতয়ালী থানা কৃষক লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো.খোরশেদ আলমকে আহবায়ক,চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী সোহেল হায়দার ও কেটিসিসিএ লি. এর সহ-সভাপতি জোনায়েদ শিকদার তপু কে যুগ্ম আহবায়ক করে কুমিল্লা মহানগর কৃষক লীগের ২১ সদস্যের আহবায়ক কেন্দ্র থেকে ঘোষনা করা হয়। বাংলাদেশ কৃষক লীগের কেন্দ্রিয় সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ ও সাধারন সম্পাদক এড.উন্মে কুলসুম স্মৃতি স্বাক্ষরিত কুমিল্লা মহানগর কৃষক লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্যরা হলেন :হাসান আহমেদ,মোশারফ হোসেন চৌধুরী মিশু,আব্দুল মালেক মেম্বার,শওকত আকবর,শেখ জহির,ফারহানা পারভিন,সালাউদ্দিন আহমেদ সোহেল,হাজী আয়ুব আলী,অপু দাশ,আব্দুস ছালাম সেলিম,কাশেম মেম্বার,গিয়াস উদ্দিন, এমদাদুল হক,আবুল কাশেম,আবদুল হালিম শেখ,তাজুল ইসলাম,খোরশেদ আলম ও মামুনুর রশিদ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: