ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা-১০ সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্বিন্যাসের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচন কমিশন সচিবকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালত অবমাননার আবেদনের শুনানি শেষে রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আবেদনের পক্ষে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও ব্যারিস্টার রাজি উদ্দিন আহমেদ পারভেজ শুনানি করেন।

ব্যারিস্টার রাজি উদ্দিন আহমেদ পারভেজ সাংবাদিকদের বলেন, ২০০৮ সালের পূর্বে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ ও লাঙ্গলকোট উপজেলা দুটি সংসদীয় আসনের (কুমিল্লা-৯ ও ১১) অন্তর্ভুক্ত ছিল। পরবর্তীকালে এ দুটি উপজেলাকে যুক্ত করে সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্বিন্যাস করে গেজেট প্রকাশ করে ইসি। যা কুমিল্লা-১০ সংসদীয় আসন নামে পরিচিতি পায়। ২০১৩ সালের ৩ জুলাই প্রকাশিত ওই গেজেটের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য মো. আব্দুল গফুর ভূঁইয়া।

রিটে দাবি করা হয়, সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্বিন্যাসের ক্ষেত্রে জনসংখ্যার অনুপাত, ভৌগোলিক অখণ্ডতা, প্রশাসনিক ইউনিটসমূহকে বিবেচনায় নেয়া হয়নি। চলতি বছরের ২০ মার্চ হাইকোর্ট রায়ে কুমিল্লা-১০ সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্বিন্যাসের ক্ষেত্রে আইনানুযায়ী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে ইসিকে নির্দেশনা দেয়া হয়।

কিন্তু রায় অনুযায়ী, ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় গত ১৫ নভেম্বর ইসিকে আদালত অবমাননার নোটিশ দেন রিটকারী আইনজীবী রাজি উদ্দিন আহমেদ পারভেজ। নোটিশপ্রাপ্তির এক সপ্তাহের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে আদালত অবমাননার মামলা করা হবে বলে উল্লেখ করা হয়। নোটিশ পাওয়ার পরেও ব্যবস্থা না নেয়ায় গত ৭ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার হাইকোর্টে আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করা হয়। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।

সূত্রঃ জাগোনিউজ