কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে খু’ন করার অভিযোগে স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। নি’হত গৃহবধূর নাম রুমা আক্তার (২৬)।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের রঘুরামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নি’হত রুমা আক্তার উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন দেওড়া গ্রামের মৃ’ত খুরশেদ মিয়ার মেয়ে।

ঘাতক স্বামী বশির মোল্লা (৩০) উপজেলার রঘুরামপুর গ্রামের মৃ’ত আলী আহম্মদের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নি’হত রুমা আক্তার ও তার ১১ মাসের ছেলে রবিউল ইসলাম গত কিছুদিন ধরে অসু’স্থতায় ভুগছিলো বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বাচ্চার ঔষধ কেনাকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে ঝগ’ড়া হয়। ঝগ’ড়ার এক পর্যায় বশির মোল্লা তার স্ত্রী রুমা আক্তার কে মার’ধর করে। এ ঘটনার পর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বশির স্থানীয় পল্লীচিকিৎসক নিয়ে আসলে ওই চিকিৎসক রুমা আক্তার কে মৃ’ত ঘোষনা করেন। পরে স্থানীয় লোকজন থানায় খবর দেন।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মনজুর আলম বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরেই খু’নের ঘটনা ঘটতে পারে। ঘা’তক স্বামী বশির মোল্লাকে আটকসহ ঘটনাস্থল থেকে নি’হতের মৃ’তদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে নি’হতের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ও ঘা’তক স্বামী বশিরকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মুরাদনগর থানায় একটি হ’ত্যা মামলা করা হয়েছে।