নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার সদর দক্ষিণে সাইফুল ইসলাম নামে প্রবাসী এক যুবককে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে সন্ত্রাসীরা। গত বুধবার রাতে উপজেলার কালিরবাজার এলাকার সাঁওরাতলী নামকস্থানে ওই যুবকের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। সাইফুল উপজেলার গোলিয়ারা গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে। তিনি গত ৬ মাস আগে দুবাই থেকে দেশে এসেছিলেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছে।

এদিকে, আশংকাজনক অবস্থায় গত বুধবার রাতে তাঁকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে কুমেক হাসপাতালে অবস্থার অবনতি হলে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই যুবককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন সেখানকার চিকিৎকরা।

ওই যুবকের পরিবারের সদস্যরা জানান, পূর্ব বিরোধের জের ধরে উপজেলার উলুরচর গ্রামের ফরিদ মিয়ার ছেলে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী সবুজের নেতৃত্বে রনি, রিয়াদ,তানজিলসহ একদল সন্ত্রাসী সাইফুলের উপর এই নৃশংস হামলা চালিয়ে তাঁকে পিটিয়ে এবং এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার করেছে। সন্ত্রাসী সবুজ তার লোকজন দিয়ে কৌশলে সাইফুলকে বাড়ি থেকে ডেকে এনেছিলো বলেও অভিযোগ করেন তারা। এছাড়া এটি একটি পরিকল্পিত হামলা বলেও জানান তারা।

>>আরো পড়ুনঃ  ভবিষ্যতে সড়কে ভুল ও ঘাটতি গুলো দুর করব: কুমিল্লায় ওবায়দুল কাদের

সাইফুল ইসলামের মা নিলুফা বেগম অভিযোগ করেন, ওই সন্ত্রাসীরা চেয়েছিলো আমার ছেলেকে একেবারেই মেরে ফেলতে। যেই স্থানে তার উপর সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়, সেই স্থানটি একেবারেই নির্জন এলাকা। যার কারনে সন্ত্রাসীরা ভেবেছিলো আমার ছেলেকে মেরে পালিয়ে যেতে পারবে। হামলার আগ থেকেই সন্ত্রাসীরা আমার ছেলেকে অসংখ্যবার হত্যার হুমকি দিয়েছিলো। এ ঘটনায় সদর দক্ষিণ থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি। এদিকে, এসব বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সবুজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.মামুনুর রশিদ বলেন, তদন্ত করে এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ