কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহতদের শরীরে লোহার হাজার হাজার ক্ষুদ্র কণা বিদ্ধ হয়েছে। হাসপাতালের বেড়ে কাতরাচ্ছে আহত রোগীরা।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে এদের মধ্যে তিনজনকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়েছে।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মির্জা মুহাম্মদ তাইয়েবুল ইসলাম জানান, ‘বিস্ফোরণে ফলে সিলিন্ডারের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশ আহতদের শরীরে প্রবেশ করে। এদের মধ্যে বেশিরভাগ শিশু হওয়ায় ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। চিকিৎসা দিতে গিয়ে দেখা গেছে আহতদের শরীরে হাজারেরও বেশি লোহার ক্ষুদ্র কণা প্রবেশ করেছে।’

হাসপাতালের পরিচালক মহিউদ্দিন বলেন, ‘হাসপাতালে গুরুতর আহত ১৬ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাদের মধ্যে তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।’

এদিকে শুক্রবার দুপুরে নাঙ্গলকোট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল হককে আহ্বায়ক করে ঘটনায় তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার মৌকরা ইউনিয়নের বিরলী গ্রামে গ্যাস সিলিন্ডার দিয়ে বেলুন ফোলানোর সময় বিস্ফোরণ হয়। এতে শিশুসহ অন্তত ৪১ জন আহত হয়েছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: