‘আমলারা এখন এমপি বাহারের চেয়েও বড় আওয়ামী লীগার’

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) কুমিল্লা কেন্দ্রের ২৫তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (৮ অক্টোবর) সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলে সম্মেলন উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা। এ দিন সকালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। ২৫তম সম্মেলনে এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘টেকসই উন্নয়নে দেশীয় সম্পদ ও প্রযুক্তির ব্যবহার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি বাহার বলেন, ‘প্রকৌশলীরা হচ্ছেন জাতির অন্যতম শ্রেষ্ঠ সন্তান। তাদেরকে যথাযথ মূল্যায়ন করতে না পারলে জাতি এগিয়ে যেতে পারবে না। আপনারা (প্রকৌশলীরা) বক্তব্যে আমলাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুঃখের কথা বলেছেন। তাদের কথা কী আর বলবো? ঢাকা শহরের আমলারা নিজেদেরকে এমপি বাহারের চেয়েও বড় আওয়ামী লীগার মনে করে। ‘

তিনি আরো বলেন, ‘আপনাদের সবাইকে মিলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে পাহারা দিতে হবে। শেখ হাসিনার কিছু হলে বাংলাদেশ শেষ হয়ে যাবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত যে সব স্বপ্ন দেখে গেছেন, তা বাস্তবায়ন করেছেন শেখ হাসিনা। যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশে বিদেশি সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, আমার মাটি ও মানুষ থাকলেই চলবে। সেই মাটি ও মানুষকে কাজে লাগিয়ে আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছি। জননেত্রী শেখ হাসিনার কারণেই এমনটা সম্ভব হয়েছে। ‘

আইইবি, কুমিল্লা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আবুল বাশারের সভাপতিত্বে ও সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী মীর ফজলে রাব্বীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন আইইবি’র সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এম. শামীম জেড বসুনিয়া, প্রকৌশলী মো.আব্দুস সবুর ও বর্তমান সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী শাহাদাৎ হোসেন শীবলু।
এ ছাড়া অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, আইইবি’র ভাইস চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খন্দকার মঞ্জুর মোরশেদ, প্রকৌশলী নুরুজ্জামান, কুমিল্লা কেন্দ্রের ভাইস চেয়ারম্যান প্রকৌশলী রহমত উল্লাহ কবির প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে স্মার্ট সিটি গঠন ও ইঞ্জিনিয়ারিং মেটারিয়েল্স নিয়ে পরপর দু’টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এতে দেশের প্রখ্যাত প্রকৌশলীরা অংশগ্রহণ করে তাদের উপস্থাপনা তুলে ধরেন। পরে এদিন বিকেলে বার্ষিক সাধারণ সভা এবং সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও একটি প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে কুমিল্লা অঞ্চলের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি দপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী, প্রকৌশলী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

দেশের নির্বাচন প্রসঙ্গে এমপি বাহার বলেন, ‘এ দেশের নির্বাচনের সময় হয়ে আসলে আমেরিকাসহ পশ্চিমারা আমাদের নির্বাচন ব্যবস্থা তদারকি করতে আসেন। অথচ আমেরিকার গত নির্বাচন নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেই হতাশ ছিলেন। তিনি ফলাফল মেনে নিতে চাননি। সেখানে আনকনটেস্টে (বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায়) এক তৃতীয়াংশ প্রার্থী নির্বাচিত হন। আর বাংলাদেশে কেউ আনকনটেস্টে জিতলে সেটাই তাদের কাছে সমস্যা।

কুমিল্লা বিভাগের নামকরণ প্রসঙ্গে এমপি বাহার আরো বলেন, ‘যেখানে (মেঘনা নদী) বঙ্গবন্ধুর খুনি মোশতাক গোসল করতো, সে নদীর নামে কীভাবে কুমিল্লা বিভাগ হয়? এই কুমিল্লার অনেক সমৃদ্ধ ইতিহাস আছে। ১৫শ’ বছর আগে এখানে বিশ্ববিদ্যালয় ছিল। এই কুমিল্লার সন্তান বাবু ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত পাকিস্তান পার্লামেন্টে মাতৃভাষা বাংলার দাবিতে কথা বলেছিলেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হয়েছেন, নিজের জীবন দিয়ে এই বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেছেন। বেগম রোকেয়ার জন্মের সাত বছর পূর্বে নবাব ফয়জুন্নেছা নারী শিক্ষার অগ্রযাত্রায় কুমিল্লায় স্কুল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। কুমিল্লার সন্তান শচীন দেব বর্মণের গান ভারতবর্ষে মুগ্ধতা ছড়িয়েছে। কুমিল্লা আদালতে ১৮৬৭ সালে প্রথম বাংলায় রায় দেওয়া হয়। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করবো কুমিল্লার ইতিহাস ঐতিহ্যের কথা ভেবে কুমিল্লা বিভাগ কুমিল্লা নামেই দিন। ‘

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  

ফেসবুকে আমরাঃ