কুমিল্লায় গ্রাহকের প্রায় চার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযাগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের মালিক, উপদেষ্টাসহ প্রতিষ্ঠানটির সব মালিককে আসামি করে কুমিল্লার আদালতে একটি মামলা করা হয়েছে।

রোববার (২৯ আগস্ট) বেলা ১১টায় কুমিল্লার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুর রহমানের ১ নং আমলি আদালতে সাইফুল খান নামের একজন কুমিল্লার ৩৯ জন গ্রাহকের পক্ষে মামলাটি করেন।

মামলার বাদী সাইফুল খান বলেন, নানা সময়ে মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য কেনার জন্য ই-অরেঞ্জকে টাকা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু নির্দিষ্ট সময় পার হলে তারা পণ্য দিচ্ছে না। টাকা আটকে রেখে আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করা হচ্ছে। আমি আমার আত্মীয়স্বজনসহ সার্কেল থেকে টাকা সংগ্রহ করে ই-অরেঞ্জকে দিই। সঠিক সময়ে পণ্য তাদের দিতে না পেরে আমিও চাপের মুখে পড়েছি।

তিনি আরও বলেন, আসামিরা সব ধরনের অফিশিয়াল কার্যক্রম বন্ধ করে গা-ঢাকা দিয়েছেন। তাই বাধ্য হয়ে আমার সার্কেলসহ ৩৯ জন গ্রাহকের পক্ষ হয়ে মামলাটি করেছি। আমরা এখন পর্যন্ত ই-অরেঞ্জকে ৩ কোটি ৯৬ লাখ ৮১ হাজার ৩১১ টাকা দিয়েছি।

তিনি বলেন, আমাদের কষ্টার্জিত শেষ সম্বলটুকু ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। কঠোর শাস্তি কামনা করছি তাদের, যেন ভবিষ্যতে কেউ ই-কমার্সের আড়ালে সাধারণ মানুষদের সঙ্গে প্রতারণা করতে না পারে।

অ্যাডভোকেট এ এফ মজুমদার নোমান জানান, প্রতারণার মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) আগামী ১১ নভেম্বরের মধ্য তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: