নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার লালমাই উপজেলার চৌদ্দদোনা গ্রামে সম্পত্তি বিরোধের জের ধরে বিভিন্ন প্রজাতীর প্রায় শতাধিক গাছ কর্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার সদর দক্ষিণ মডেল থানায় ৭জনকে অভিযুক্ত করে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ভূশ্চি ফাঁড়ি ইনচার্জ (তদন্ত) আদিল মাহমুদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কর্তনকৃত গাছগুলো উদ্ধার করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নব-গঠিত লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউপির চৌদ্দদোনা গ্রামের প্রবাসী মিজানুর রহমান নিজ সম্পত্তিতে ৬-৭ বছর পূর্বে মেহগনী,আকাশমনী, শাপ্লাইস সহ বিভিন্ন প্রজাতির কয়েকশ গাছের চারা রোপন করেন। ওই গ্রামেরই মৃত. আলী আহমদ মুহুরীর ছেলে মহিউদ্দিন, একই বাড়ীর জামাল হোসেন, রাকিব হোসেন, আনা মিয়া, আবদুল মান্নান, সুমন ও ফরিদ সম্পত্তির মালিকানা দাবী করে দিন দুপুরে বিভিন্ন প্রজাতীর শতাধিক গাছ কর্তন করে।

এ ঘটনায় গতকাল প্রবাসী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে অবৈধভাবে জোরপূর্বক গাছ কাটার অভিযোগ এনে ৭জনের বিরুদ্ধে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযুক্ত জামাল হোসেনের মুঠোফোনে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোন কেটে দেয়।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বেলঘর উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল খায়ের মজু: বলেন, গাছগুলি কাটা সম্পূর্ন অবৈধ। তবে এ সম্পত্তি নিয়ে উভয় পক্ষের মাঝে দালিলিকভাবে দীর্ঘদিনের বিরোধ নিরসনে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার চেষ্টা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ভূশ্চি ফাঁড়ি ইনচার্জ (তদন্ত) আদিল মাহমুদ বলেন, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। গাছ কাটা সম্পূর্ন অবৈধ। সম্পত্তির বিরোধের বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: