ডেস্ক রিপোর্টঃ বিএনপিকে অপরাধীদের দল উল্লেখ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করীম সেলিম এমপি বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধী, রাজাকার, স্বাধীনতার চেতনা বিরোধীদের নিয়ে ২০ দল গঠন করেছেন। গণতন্ত্র নয়, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদই হচ্ছে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন ২০ দলের মুলমন্ত্র। এরা মানুষ খুন করেছে, বোমাবাজি করেছে। এদের মুখে গণতন্ত্র শব্দ মানায় না। বিএনপির রাজপথের আন্দোলন তো অনেক আগেই বন্ধ হয়ে গেছে। এখন টিভির পর্দায় বক বক ছাড়া আর কোনো গতি নেই। বিএনপি আন্দোলনে সফল হতে পারেনি, তারা নির্বাচনেও জয়ী হবে না। এদেশের জনগণ বিএনপি ও তাদের মিত্রদের হাড়ে হাড়ে চিনেছে।

গতকাল কুমিল্লার ঐতিহাসিক টাউনহল মাঠে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের বিশাল কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শেখ সেলিম এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন স্বাধীনভাবে কাজ করে যথাসময়ে একাদশ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করবেন। সংবিধানে নির্বাচনের বিষয়ে যেভাবে উল্লেখ রয়েছে ঠিক সেই মোতাবেকই নির্বাচন হবে। বিএনপি তৃতীয় শক্তির স্বপ্ন দেখছে। সেই স্বপ্ন পূরণ হবে না। আর সেই পথ চিরতরে বন্ধ হয়ে গেছে। নির্বাচন বানচালের ক্ষমতা বিএনপির নেই। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার সকল উন্নয়ন মানুষের সামনে তুলে ধরে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

কর্মী সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি, রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

সমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় কুমিল্লা সদরের এমপি ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, আজকে মহানগরে লাখো কর্মী সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন জেলা ও মহানগর যুবলীগের কমিটি নেই। সামনে নির্বাচন। যুবলীগের কমিটি দেয়া উচিত। কুমিল্লায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ। এই কুমিল্লা নৌকার ঘাঁটিতে পরিণত হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: