কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড়ে তর্কাতর্কির জেরে দোকানের সামনে থেকে এক ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে গেছেন র‍্যাব সদস্যরা। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে দোকান বন্ধ করে দুই ঘণ্টা ধরে কান্দিরপাড় সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন ব্যবসায়ীরা। এরপর র‍্যাবের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এটি ভুল বোঝাবুঝির কারণে হয়েছে। ওই ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেয়া হবে।

বিক্ষোভকারী কয়েকজন ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, কান্দিরপাড়ে পাকশী গার্মেন্টস দোকানের মালিক মজিবুর রহমান। তার দোকানের সামনে বৃহস্পতিবার দুপুরে মোটরসাইকেল পার্ক করে রাখেন এক র‍্যাব সদস্য। মজিবুর তাকে সেখানে পার্কিং করতে মানা করলে তাদের মধ্যে তর্কাতর্কি হয়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আরেক ব্যবসায়ী বলেন, তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে মজিবুর ওই র‍্যাব সদস্যকে চড়ও মারেন।

আরেক ব্যবসায়ী বলেন, র‍্যাব সদস্য সাদা পোশাকে ছিলেন বলে মজিবুর তাকে চিনতে পারেননি। পরে পরিচয় দেয়ার পর তার কাছে মজিবুর ক্ষমা চান।

কিন্তু ওই র‍্যাব সদস্য তাকে ক্ষমা না করে ফোনে তার কয়েকজন সহকর্মীকে সেখানে ডেকে নেন। এরপর তারা মজিবুরকে একটি গাড়িতে তুলে নগরীর শাকতলা এলাকার র‍্যাবের কার্যালয়ে নিয়ে যান।

এ ঘটনার প্রতিবাদে দুপুরে ব্যবসায়ীরা রাস্তা আটকে বিক্ষোভ শুরু করলে সেখানে যান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহান সরকার।

তিনি বলেন, ‘আমরা ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করছি। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত বলব।’

ঘটনার সত্যতা জানতে কুমিল্লা র‍্যাব ১১ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুস সাকিবের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হয়।

তিনি বলেন, বিষয়টা একটা ভুল বোঝাবুঝি ছিল। ওই র‍্যাব সদস্য সাদা পোশাকে ছিল। তর্কাতর্কির সময় মজিবুর তাকে চড় মারে। তাকে র‍্যাব কার্যালয়েই রাখা হয়েছে।

মেজর তালুকদার আরও জানান, ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা কার্যালয়ে গেলে মুজিবুরকে তাদের হাতে তুলে দেয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: