কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার পরিহলপাড়া গ্রামে আরবি পড়ানোর নামে শিশুকে যৌ’ন নিপীড়নের অভিযোগে মো. কামাল উদ্দিন নামে এক মসজিদের ইমামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার বিকেলে গ্রেফতারকৃত ইমামকে কুমিল্লা আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে বুড়িচং থানা পুলিশ।

জানা যায়, জেলার চান্দিনা উপজেলার দেওকামতা গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে মো. কামাল উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের পরিহলপাড়া বাইতুল মামুর জামে মসজিদের ইমাম হিসেবে কর্মরত ছিল। নিয়মিত নামাজ পড়ানোর পাশাপাশি সে শিশুদের আরবি শিক্ষা দিতো। গত ১৯ আগস্ট বেলা পৌনে ৩টায় শিশুরা আরবি শিক্ষার জন্য মসজিদের পাশে নির্মিত একটি রুমে আসে। আরবি পড়ানো শেষে অন্য শিশুদের বাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে ৮ বছরের একটি শিশুকে যৌ’ন নিপীড়ন করে ইমাম কামাল উদ্দিন।

পরদিন শিশুটির মা শিশুটিকে গোসল কারানোর সময় যৌ’ন নিপীড়নের বিষয়টি বুঝতে পারে। যৌ’ন নিপীড়নের বিষয়টি স্থানীয় লোকজন জানতে পেরে মসজিদ থেকে ইমামকে আটক করে পিটুনি দেয়। খবর পেয়ে দেবপুর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত ইমামকে আটক করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে চিকিৎসা দেয়।

এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে শনিবার বুড়িচং থানায় একটি মামলা করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন, অভিযুক্ত ইমাম কামাল উদ্দিনকে শনিবার বিকেলে কুমিল্লা আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সূত্রঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: