কুমিল্লার দাউদকান্দিতে সন্তান প্রসবের ২০ ঘণ্টা পর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ইমা আক্তার নামের এক কিশোরী।

রোববার (২১ নভেম্বর) দুপুর ২টায় ওই কিশোরী উপজেলার গৌরীপুর বিলকিস মোশাররফ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং পরীক্ষায় অংশ নেয়।

ইমা আক্তার জেলার তিতাস উপজেলার লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সে তিতাসের লালপুর গ্রামের হোসেন সরকারের মেয়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দশম শ্রেণিতে পড়ার সময় একই উপজেলার শাহাপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী বাদল মিয়ার সঙ্গে ইমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামীর বাড়িতে থেকেই সে লেখাপড়া চালিয়ে যায়। শনিবার বিকেল ৫টার দিকে ইমার প্রসববেদনা শুরু হলে তাকে দাউদকান্দির গ্রিনল্যাব হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে ডা. সামিয়া সুবাত মাইশার তত্ত্বাবধানে স্বাভাবিকভাবে কন্যা সন্তান জন্ম দেয়। রোববার দুপুরে হাসপাতাল থেকে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশায় করে সে গৌরীপুর বিলকিস মোশাররফ বালিকা উচ্চবিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে উপস্থিত হয়।

ইমার বড় ভাই সামিউল সরকার জানান, দশম শ্রেণিতে ওঠার পর আমার বোনের বিয়ে হয়। এরপর দুই বাড়িতে থেকে নিয়মিত ক্লাস করেছে। লেখাপড়ার প্রতি তার আগ্রহ অনেক বেশি।

এ বিষয়ে লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বশির আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, ইমা আক্তার খুব মেধাবী। বিয়ের পরও সে অন্য ছাত্রীদের মতোই নিয়মিত ক্লাস করেছে। আজও সে দেড় ঘণ্টার পরীক্ষায় প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: