মুরাদনগর সংবাদদাতাঃ কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার নবীপুর পূর্ব ইউনিয়নের নগরপাড় রায় দিঘীর রাত্রিকালীন পাহাড়াদার জামাল মিয়া(৪৫) নিখোজের ১দিন পর দিঘীর পানি থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে মুরাদনগর থানা পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম বদিউজ্জমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ রায় দিঘী থেকে লাশ উদ্ধার করেন।

নিহত জামাল মিয়া চান্দিনা উপজেলার বসন্তপুর গ্রামের মৃত আদম আলীর ছেলে।
গত ৭ই নভেম্বর চান্দিনা উপজেলার বসন্তপুর গ্রামের জামাল মিয়াকে নগরপাড় গ্রামের রায় দিঘীর রাত্রিকালীন পাহাড়া দেয়ার জন্য চাকুরিতে নিযুক্ত করেন দিঘীর মালিক সিদ্দিক মিয়া চৌধুরী।

স্থানীয়রা জানায় গত রবিবার মধ্যরাতে পাহাড়াদার জামাল মিয়া ছোট্ট একটি নৌকা নিয়ে মাছ পাহাড়া দেয়ার জন্য দিঘীর মধ্যে গিয়ে নিখোজ হয়। সোমবার সকালে অনেক খোজাখুজি করে জাল ফেলে ডুবন্ত অবস্থায় নৌকাটি উদ্ধার করলেও তার কোন হদিস পাওয়া যায়নি। এঘটনায় দিঘীর মালিক সিদ্দিক মিয়া সোমবার দুপুরে মুরাদনগর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে জেলেরা দিঘীর পানিতে জামাল মিয়ার মৃতদেহ ভেসে থাকতে দেখে পুলিশে খরব দেয়। সকাল সাড়ে ১০টার সময় পুলিশ লাশটি উদ্ধার করেন।
এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মুরাদনগর সার্কেল) জাহাংগীর আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

এব্যাপারে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বলেন দিঘীর রাত্রিকালীন পাহাড়াদারের লাশ ভাসমান অবস্থায় মঙ্গলবার দিঘি থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পেলে মৃত্যুর কারন জানা যাবে। সুরতহালে নিহতের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: