নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টা। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট সংলগ্ন নাজিরাবাজার এলাকায় চট্টগ্রামগামী দ্রুতগতির একটি লংব্যাহিকেল অজ্ঞাত একটি গাড়িকে পিছন থেকে থাক্কা দেয়। ধাক্কা দিয়েই দূর্ঘটনাকবলিত লংব্যাহিকেলের ড্রাইভার সংকটাপন্নভাবে আটকাপরে নিজের গাড়ির কেবিনের ভিতর। এলাকাবাসীর পক্ষথেকে ফোন করা হয় হাইওয়ে পুলিশকে। মুহুর্তেই ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি মাহবুবুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ছুটে আসেন ঘনাস্থলে।

পুলিশের রেকারসহ বিভিন্ন যন্ত্রাংশ দিয়ে শুরু করেন উদ্ধার কাজ। উদ্ধার কাজে ফোর্স নিয়ে এগিয়ে আসেন স্থানীয় নাজিরা বাজার পুলিশ ফাড়ির ইন্সফেক্টর শেখ মাহমুদুল হাসান রুবেল, ফায়ার সার্ভিস কর্মী এবং সাধারন জনতা।

ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি মাহবুবুর রহমানের সাহসিকতা এবং প্রচেষ্টায় অল্পসময়ের মধ্যে দরজা ভেঙ্গে উদ্ধার করা হয় চালককে। তরিৎ গতিতে পাঠানো হয় হাসপাতালে। অবশেষে সকলের সহযোগিতায় প্রানে রক্ষাপেল চালক।

উদ্ধার হওয়া চালক মেহের আলী নোয়াখালি জেলার সুধারাম উপজেলার অলিপুর গ্রামের সালাহ উদ্দিন মিয়ার ছেলে।

ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, চালক যেভাবে স্টিয়ারিংয়ের সাথে আটকে ছিল আর কিছুক্ষন থাকলে হয়ত মরেও যেতে পারত। নিজের জীবনের ঝুকি নিয়ে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করি। সকলেরর সহযোগিতায় চালককে জীবিত উদ্ধার করতে পারায় আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: