কুমিল্লা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার যোগাযোগ সুবিধার জন্য আরেকটি হাইওয়ে হবে। আর এতে সড়ক পথে এই দু’জেলার যাতায়াতে দূরত্ব কমে যাবে প্রায় ২০ কিলোমিটার। প্রায় ৪৩ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রাস্তা নির্মানে ব্যয় হবে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকা।

একটি অনলাইন ভার্চ্যুয়াল সেলিব্রেটি আড্ডায় অংশ নিয়ে কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহা উদ্দিন বাহার এ সব কথা বলেন। তিনি জানান-কুমিল্লা শহরের কাপ্তান বাজার থেকে গোমতী নদী পেড়িয়ে ব্রাহ্মণপাড়া, বুড়িচং ও কসবা উপজেলা দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সঙ্গে যুক্ত হবে এই হাইওয়ে।

Kabir Steel Re-Rolling Mills (KSRM)
তিনি জানান, এই প্রকল্পের কাজ অনেকদূর এগিয়ে আছে এবং সরকারের এই মেয়াদেই এর কাজ শুরু হবে বলে আশা করেন তিনি। এমপি বাহার আরো বলেন, সড়কটি হলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষকে ক্যান্টনমেন্ট দিয়ে ঘুরে কুমিল্লা আসতে হবে না। কুমিল্লা বিভাগ বাস্তবায়নে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

একদিকে কুমিল্লা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া সড়ক যোগাযোগ খুবই খারাপ অপরদিকে ট্রেনে আসন বরাদ্দ নেই জানালে এই দুই জেলার মধ্যে আরেকটি হাইওয়ে হওয়ার তথ্য দেন কুমিল্লার সংসদ সদস্য আ ক ম বাহা উদ্দিন বাহার। তিনি বলেন- কুমিল্লা বিভাগ হলে আরো অনেক কিছুই হবে। কানেক্টিভেটি বাড়বে সব ক্ষেত্রে।

সওজ কুমিল্লা সূত্রে জানা যায়, প্রস্তাবিত এই প্রকল্পের আওতায় উভয় পাশে আলাদা দুটি লেনসহ ৪৩ কিলোমিটার দীর্ঘ চার লেন প্রশস্ত সড়ক তৈরি করা হবে। কুমিল্লা জেলার বুড়িচং, মুরাদনগর, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা ও আখাউড়া উপজেলায় বাস্তবায়িত হবে।

বাজার এলাকার জন্য ৪ দশমিক ৪৭ কিলোমিটার ফুটপাত নির্মাণ করা হবে। এছাড়া, প্রকল্পের আওতায় ১৪টি ব্রিজ, একটি ফ্লাইওভার, দুটি আন্ডারপাস, ৫০টি কালভার্ট ও ১২টি ফুটওভারব্রিজ নির্মাণ করা হবে। ফলে দ্রুত ও নিরাপদ যান চলাচল নিশ্চিত হওয়াসহ আর্থসামাজিক উন্নয়ন ঘটবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা জানান,এ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে সড়কটি দেশের অর্থনৈতিকভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখবে। তবে প্রকল্পটি এখনো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।আমি মাত্র কয়েকদিন আগে এখানে যোগদান করেছি। বিস্তারিত জেনে আপনাদের জানানো হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: