১৬ দিনেও সন্ধান মেলেনি কুমিল্লার নিখোঁজ ৬ শিক্ষার্থীর

কুমিল্লায় গত আগস্ট মাসের ২৩ তারিখ কুমিল্লা নগরীর রেইসকোর্স এলাকার বাসা থেকে বের হয়ে যান ইমরান বিন রহমান (১৭)। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজ থেকে এবছর এইচএসসি পরীক্ষার্থী ইমরান এরপর থেকে আর বাসায় ফিরেননি। পরদিন ২৪ আগস্ট কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় একটি নিখোঁজের ডায়েরি করেন ইমরানের বাবা মোঃ মুজিবুর রহমান।

শুধু ইমরানই নন, কাছাকাছি সময়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া ও সরকারি কলেজের আরো ৫ শিক্ষার্থী নিখোঁজ হয়েছেন। তাদের প্রত্যেকের পরিবারই তাদের সন্ধান চেয়ে থানায় জিডি করেছেন। এরপর প্রায় ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও তারা আর বাসায় ফিরেননি, মেলেনি তাদের কোনো হদিস। নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের মধ্যে চারজন এ বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং বাকি দু’জন অনার্স প্রথম ও তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীরা হচ্ছেন- কুমিল্লা সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ও নগরীর রাণীর বাজার এলাকার মোঃ সাইফুল ইসলামের পুত্র নিহাল (১৭), একই এলাকার শাহাব উদ্দিনের ছেলে হাসিবুল ইসলাম (১৮), কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী কান্দিরপাড় এলাকার মাহবুবুর রহমানের পুত্র সামি (১৭), নগরীর রেইসকোর্স এলাকার মুজিবুর রহমানের (মুকুল) পুত্র ইমরান বিন রহমান, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ও নগরীর রেইসকোর্স এলাকার মো. ফয়েজ আহমেদের ছেলে ইমতিয়াজ আহমেদ রিফাত (১৯) এবং অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ও নগরীর ঝাউতলা এলাকার নুরুল ইসলামের পুত্র মো. আমিনুল ইসলাম (২৩)।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আফজল হোসেন বলেন, আমরা বিষয়টি জানার পর প্রথমেই যেটি বের করার চেস্টা করছি তারা কাছাকাছি সময়ে নিখোঁজ হয়েছে কি না? এছাড়া তাদের নিখোঁজ হওয়ার কারণ একই কি না। আমাদের কর্মকর্তারা কাজ করছেন। খুব দ্রুত বিষয়ে ফলাফল দিতে পারবো।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের একজনের পরিবারের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বেশ ক’ বছর ধরেই সে ধর্মীয় অনুরাগী হয়ে উঠেছিলো। মোবাইল ফোনে ওয়াজ মাহফিল শোনার পাশাপাশি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন এলাকার মসজিদে গিয়ে ধর্মীয় বয়ান শুনতো এবং ধর্মীয় বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানে অংশ নিতো।

প্রায় কাছাকাছি সময়ে হঠাৎ করে ৬ শিক্ষার্থীর এভাবে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি শঙ্কায় ফেলেছে তাদের অভিভাবকদের। অভিভাবকরা আশঙ্কা করছেন- উঠতি বয়সী এসব তরুণ শিক্ষার্থীদের হয়তো নানা প্রলোভন ও ধর্মীয় ভিরুতা দেখিয়ে উগ্র ধর্মীয় গোষ্টির সাথে জড়িয়ে ফেলা হয়েছে। নিখোঁজদের ফিরে পেতে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন তারা।

এ বিষয়ে র‌্যাব ১১ সিপিসি ২ কুমিল্লার অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব বলেন, ‘আমরা বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। তদন্তাধীন বিষয় নিয়ে এই মুহূর্তে কিছু বলতে চাচ্ছি না। আশা করি, দ্রুত আপনাদের অগ্রগতি জানাতে পারব।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ