ডেস্ক রিপোর্টঃ বিপিএলের দ্বিতীয় ম্যাচে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের কাছে বড় ব্যবধানে হারতেই হল রংপুর রেঞ্জার্সকে। কুমিল্লার দেয়া ১৭৪ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ১৪ ওভারে ৬৮ রানেই অল-আউট হয়ে যায় রংপুর।

রংপুরের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে মাত্র তিনজন পার হতে পেরেছেন দশ রানের কোটা। এরপর আর বেশি বলার থাকে না। তবে কুমিল্লার বোলারদের কৃতিত্ব দিতেই হবে। বছরের এই সময়ে শিশিরের মধ্যে রাতে বল করাটা কঠিন কিন্তু কঠিন কাজটিই অনায়াসে করে দেখিয়েছেন তারা।কুমিল্লার বোলারদের মধ্যে আফগানিস্তানের স্পিনার মুজিব তিন ওভার বল করে দিয়েছেন মাত্র সাত রান, উইকেট অবশ্য একটি। অন্যদিকে সৌম্য ও সানজামুল তুলে নিয়েছেন দুইটি করে উইকেট।

এর আগে, কুমিল্লা ও রংপুরের মধ্যেকার বিপিএলের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বড় স্কোর গড়েছে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। তবে শুরুতে মনে হচ্ছিল কুমিল্লা বোধহয় ১২০ রানও তুলতে পারবে না। অধিনায়ক শানাকাকে পুরোপুরি হতাশ করেছেন কুমিল্লার ব্যাটসম্যানরা। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৩ তোলে কুমিল্লা। রংপুরের সামনে লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ১৭৪ রান।

ইনিংসের প্রথম বলেই কুমিল্লার ওপেনার ইয়াসির আলিকে সাজঘরে ফেরান রংপুরের অধিনায়ক মোহাম্মদ নবি। এরপর থেকে আর কখনোই সঠিক দিশা পায় নি কুমিল্লার ব্যাটিং লাইন-আপ। এক এক করে ফিরে যান সৌম্য, রাজাপক্ষে, মালান, সাব্বির ও অঙ্কন। মাত্র ৮৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ডুবে যাচ্ছিল কুমিল্লার তরী। সেই তরীর হাল ধরেন অধিনায়ক শানাকা। দুর্দান্ত এক ফিফটি করে দলকে দেড়শ রানের কোটা পার করান, নিজে অপরাজিত থাকেন ৩১ বলে ৭৫ রান করে।