কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার খলিলপুর গোমতী সেতু। সেতুর দুইপাশের রেলিং ভেঙ্গে নিয়ে গেছে মাদ’কসেবীরা। রেলিং না থাকায় ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন পারাপার হচ্ছে। নিরাপদ নয় পথচারী নারী, শিশু, বৃদ্ধসহ স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রীরা।

সূত্র জানায়, খলিলপুর গোমতী সেতুটি সন্ধ্যার পর নিরব হয়ে যায়। রাতে এখানে মাদ’কাসক্তদের আড্ডা বসে। তারা মাদ’কের অর্থ যোগানের জন্য রেলিং ভেঙ্গে রড নিয়ে বিক্রি করে। এতে সেতুটি এখন রেলিং শূন্য হয়ে পড়েছে।

স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবুল কালাম বলেন, রেলিং ছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ দিয়ে বড়দের পার হতেই সমস্যা হয়, সেখানে ছোট ছোট শিক্ষার্থীরা আরো বেশি সমস্যায় পড়ছে। সেতুটি সংস্কারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি করছি।

ফতেহাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, পাহারা দেওয়ার জন্য চৌকিদার নিয়োগ দিয়ে এক মাদ’কাসক্ত চোরকে ধরি। কিছু প্রভাবশালী ভবিষ্যতে এমন আর না ঘটার অঙ্গীকার করে তাকে ছাড়িয়ে নেয়। ব্রিজটির সংস্কারে স্থানীয় প্রশাসনে আবেদন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মো.শাহ আলম বলেন, ব্রিজটির রেলিং কোন গাড়ির ধাক্কায় ভাঙ্গেনি, এটা মাদ’কসেবী ও ছিচকে চো’র রড চু’রি করে নেওয়ার ফলে হয়েছে। আগামী জুনে মেইনটেনেন্স বাজেটে সেতুটি সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন