ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার বরুড়া উপজেলায় অমতে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা করায় নিজ শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন নাছিমা আক্তার (২৪) নামে এক তরুণী।

রোববার রাতে উপজেলার জীবনপুর (মিস্ত্রি বাড়ি) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

তবে পুলিশ বলছে অন্য কথা। পুলিশ জানায়, বাবার বাড়িতে রান্না করার সময় নাসিমার উড়নায় আগুন লেগে যায়।

নিহত নাছিমা আক্তার ওই গ্রামের বিল্লাল মিস্ত্রির মেয়ে।

পারিবারিক সূত্র জানায়,পার্শ্ববর্তী উপজেলা চান্দিনায় এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল নাসিমার। পরিবারের লোকজন তার সম্পর্ক মেনে না নিয়ে গত শনিবার অন্য জায়গায় বিয়ে ঠিক করে আংটি পড়ায়। তা নাসিমা মেনে নিতে না পেরে রোববার রাত ৮টার দিকে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর উদ্বোধন

পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

বরুড়া থানা ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন, রোববার সকালে তার বাবার বাড়িতে রান্না করার সময় নাসিমার উড়নায় আগুন লেগে যায়। স্থানীয় লোকজন তার চিৎকার শুনে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করে সেখানে রাত ৩টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, নাসিমার দুইটি বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু কোনো সংসার টিকেনি। তার বাবার বাড়িতে আছে। তার গায়ে কেউ আগুন লাগায়নি। লাশ এখনও এলাকায় এসে পৌঁছেনি।

সূত্রঃ যুগান্তর