কুমিল্লার আদর্শ নগর উপজেলায় মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় এক কিশোরকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ সময় অগ্নিকাণ্ডে ৯টি দোকানও পুড়ে গেছে।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার পাঁচথুবী ইউনিয়নের বউ বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত কিশোরের নাম আরাফাত হোসেন (১৫)। সে উপজেলার চাঁনপুর এলাকার মো. আবুল বারেকের ছেলে।

মো. আবদুল বারেক বলেন, ‘আরাফাত থাই গ্লাসের মিস্ত্রি হিসেবে কাজ করে। মঙ্গলবার দুপুরে চার তরুণ তাকে বাড়ী থেকে ডেকে বউ বাজারে নিয়ে আসে।’

তিনি অভিযোগ করেন, ওই যুবকরা একটি দোকানে আরাফাতকে তালাবদ্ধ করে বাইরে থেকে আগুন দেয়। এতে আগুনে পুড়ে মারা যায় আরাফাত।

আবদুল বারেক বলেন, ‘কিছু দিন আগে তাদের বাড়ীর পাশে বসে গাঁজা সেবন করছিল ওই যুবকরা। আরাফাত তাদেরকে বাড়ির পাশে গাঁজা সেবন করতে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আরাফাতকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে তারা।

মনির হোসেন নামে এক ব্যবসায়ী জানান, দুপুর দেড়টায় হঠাৎ করে দোকানের পেছনে আগুনে লাগে। মূহুর্তেই আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ৯টি দোকান ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

পরে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট এসে এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী আজম জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর ধ্বংসস্তুপের ভেতর থেকে আরাফাতের লাশ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল হক বলেন, ‘লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছি। প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি পরিকল্পিত বলে মনে হয়েছে।

তিনি জানান, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে আরাফাতের পরিবার।

আদর্শ নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া আফরিন ও পাঁচথুবী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বাহালুল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: