এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম এ বক্তব্যাংশ কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছিল স্বাধীনতা যুদ্ধ। ১৯৭১ সালের সেই ঐতিহাসিক ৭ ই মার্চের বঙ্গবন্ধুর সেই ঐতিহাসিক ভাষণ স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণের আয়োজন করে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ।

শনিবার সকাল ১০ টায় নগর উদ্যানে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ১১ টায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, এরপরই কলেজ অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়া।

ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জুবাইদা নূর ও বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নিগার সুলতানার স ালনায় বক্তব্য রাখেন, উপাধ্যক্ষ ড.আবু জাফর খান,শিক্ষক পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান, পদার্থ বিভাগের প্রধান বিজয় কৃ রায়, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান কাজী মুজিবুর রহমান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রাজু আহাম্মদ প্রমুখ।

উপাধ্যক্ষ তার বক্তব্যে বলেন, ১৯৭৬ সালে ৭ই মার্চে একটি পত্রিকায়ও ৭ই মার্চ সর্ম্পকে খবর ছাপানো হয়নি। ১৯৭৭ সালে মাত্র ২ টি পত্রিকায় (ইত্তেফাক ও সংবাদে) ৭ই মার্চ সর্ম্পকে খবর ছাপানো হলেও জাতির জনকের নাম উল্লেখ করা হয়নি। শুধু বলা হয়েছিল মানুষকে উদ্বুদ্ব করার জন্য ভাষণটি জরুরি ছিল, কিন্ত ভাষণ বা বক্তব্যটি কার ছিল তা লিখা হয়নি। ১৯৭৯ সালে ৭ই মার্চের পত্রিকায় বঙ্গবন্ধু’র নাম আসে।

কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়া বলেন, ৭ই মার্চের ভাষণ আজকে সারা বিশে^র মানুষ যেটাকে শোষিত মানুষের পক্ষের ভাষণ হিসেবে গ্রহন করেছে। তাই শুধুমাত্র আলোচনা সভা-ই নয়, আমাদের পরিবারে, আমাদের সন্তানদেরকেও বঙ্গবন্ধু ও ৭ই মার্চ ভাষণ কেন? কি? এ সম্পর্কে শিখাতে হবে।