মো: ওমর ফারুকঃ কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার বাঙ্গড্ডা-মাহীনি সড়কটি বেহাল দশার মধ্যে রয়েছে, এতে জন দূর্ভোগ চরম আকার ধারন করেছে । এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার যানবাহন চলাচল করে। ভাড়ায় চালিত গাড়ী গুলোর যাত্রীরা যেমন আঘাত পাচ্ছে, অন্যদিকে অটোরিকশার সমস্যা হচ্ছে। এতে গাড়ীর নাট, বল্টু খুলে যাচ্ছে।

একাধিক ভাড়ায় চালিত গাড়ীর ড্রাইভার জানায়, প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে গাড়ী চালাতে গিয়ে যেমন গাড়ীর ক্ষতি হচ্ছে, অন্যদিকে যাত্রীরাও কষ্ট পাচ্ছে। এই সড়ক মেরামতের দুই বছরের মধ্যে সড়কটিতে কার্পেটিং উঠে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বাঙ্গড্ডার তালতলা, মাহিনী থেকে ছুপুয়া পর্যন্ত সড়কে সবচেয়ে বেশি ছোট-বড় গর্ত। এ ছাড়া অলিপুর বাজার থেকে জোড়পুকুরিয়া, মান্দ্রা হয়ে নাঙ্গলকোট পর্যন্তও বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য গর্ত রয়েছে । এই সড়ক দিয়ে মালবাহী ভ্যান, ট্রাক ও ট্রাক্টর যাতায়াত করে।

রোগীদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নাঙ্গলকোট থেকে কুমিল্লায় ও চৌদ্দগ্রামে অসুস্থ রোগী ও প্রসূতি মায়েদের যাতায়াত করতে গিয়ে আরো অসুস্থ হতে হয়। মাহিনী গ্রামের অটোরিকশার ড্রাইভার আরীফ জানায়, গত কয়েক দিন আগে এক রোগি নিয়ে নাঙ্গলকোট আসার পথে রোগি আরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। রাস্তাটির বেহাল সমস্যার কারনে সঠিক সময় রোগী আনা যাচ্ছে না। এই সড়ক দিয়ে চালাচল কারী কবির আহমেদ বলেন, নিম্নমানের সংস্কারকাজের কারণে দুই বছর না যেতেই সড়কটির এ অবস্থা । ছোট-বড় গর্তের মধ্য দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে গাড়ীর চালক ও যাত্রীদের । এখন বৃষ্টি নেই, তাই দ্রুত সড়কটি মেরামত করার প্রয়োজন।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রকৌশলী মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, এই সড়কের ৫ কিলোমিটার মান্দ্রা থেকে মাহিনী পর্যন্ত সড়ক মেরামতের কাজ অল্প সময়ের মধ্যে শুরু হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: