মো. নাজিম উদ্দিন: কুমিল্লার মুরাদনগরে এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হলেও রেজাল্ট দেখে যাওয়া হলো না মনছুরা আক্তার পান্নার। কোম্পানীগঞ্জ বদিউল আলম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মানবিক বিভাগ নিয়ে এবছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলো সে। গত ২৯শে এপ্রিল সবাইকে কাদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমায় পরিবারের প্রিয় পান্না।

মনছুরা আক্তার পান্না উপজেলার নবীপুর পূর্ব ইউনিয়নের গুঞ্জর গ্রামের আবদুল হালিম’র মেয়ে এবং বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক গাজীউল হক চৌধুরীর ভাতিজি। কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক মেজবাহ্ উদ্দিনের ছোট বোন। পরিবারে ১ভাই ও ৩বোনের মাঝে মনছুরা ছিল সবার ছোট।

৬ই মে সোমবার প্রকাশিত এসএসসির ফলাফলে দেখা যায় পান্না জিপিএ-৩.০০ পেয়ে উর্ত্তীন হয়েছে। কিন্তু তার এই সফলতার কথা সে নিজেই জানতে পারলনা। ফলাফল ঘোষনার ৭দিন আগে পরিবার ও সহপাঠীদের কাদিঁয়ে পাড়ি জামিয়েছে পরপারে।

>>আরো পড়ুনঃ  বশেমুরবিপ্রবি'র ভিসির অপসারণের দাবিতে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

জানা যায়, পান্না গত ২৮শে এপ্রিল সকালে হঠাৎ করে প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে তাকে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে তার স্বজনরা কুমিল্লা জেলা শহরের মুন হসপিটালে ভর্তি করে। সেখানে লাইফ সার্পোটে থাকা অবস্থায় ২৯শে এপ্রিল দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ