লাকসাম প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার লাকসামে স্কুল পড়–য়া মেয়েকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় বখাটের দল মা-বাবাকে কুপিয়ে জখম করেছে। পিটিয়ে আহত করেছে ওই স্কুল ছাত্রীকে। থানায় অভিযোগ করায় আরও ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটেরা ভেঙ্গে দিয়েছে তাঁর বাড়ি-ঘর।

এদিকে আহত অবস্থায় চিকিৎসা নিতে এসেও বখাটেদের হুমকি-ধমকিতে ভয়ে অবশেষে ভুক্তভোগীদের বাধ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়ে যেতে হয়েছে। এখন বখাটেদের অত্যাচারের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাবা-মাসহ ওই স্কুল ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার উপজেলার মুদাফরগঞ্জ (উত্তর) ইউনিয়নের চিকুনিয়া গ্রামে।

লাকসাম থানায় দায়ের করা অভিযোগ ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের আবদুর রবের ছেলে দিন মজুর আমির হোসেন অনেক কষ্ট করে স্থানীয় একটি বেসরকারি স্কুলে তাঁর মেয়েকে পড়া-লেখা করান। মেয়েটি ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লা তিতাসে বিরল প্রজাতির ৫ লক্ষ টাকার বিদেশী কবুতর চুরি

একই গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে পিকআপ চালক বখাটে রিপন হোসেন (২২) ও তার সহযোগী একই বাড়ির মৃত মেন্ডা মিয়ার ছেলে মিলন (২৬) প্রতিনিয়ত ওই ছাত্রীকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে উত্যক্ত করে আসছে।

গত রোববার বিকেলে আবারও স্কুল থেকে ফেরার পথে বখাটেরা ওই ছাত্রীর গতিরোধ করে তুলে নেয়ার চেষ্টা চালায়। কোনো ভাবে সে পালিয়ে একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। সেখানেও বখাটেরা আক্রমন চালায়। প্রাণ ভয়ে ওই ছাত্রী আশ্রয় নেওয়া বাড়ির পেছন দিক দিয়ে পালিয়ে নিজ বাড়িতে এসে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। বখাটেরা পেছন পেছন এসে বাড়িতেও হামলা চালায়।

সংবাদ পেয়ে ওই ছাত্রীর বাবা বাড়ি এসে ওই ঘটনার প্রতিবাদ করলে বখাটে রিপন এবং মিলনসহ কয়েকজন ওই ছাত্রীর বাবা-মাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। তাদের হামলা থেকে ওই ছাত্রীও বাদ পড়েনি।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লায় বাসের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পাম্প কর্মচারী নিহত, আহত ৭

আমির হোসেনের অভিযোগ, হামলাকারীরা তাঁর ৫ মাসের অন্তঃস্বত্তা স্ত্রী এবং স্কুল পড়–য়া মেয়েকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ ঘটনায় তিনি প্রতিকার চেয়ে লাকসাম থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে ফেরার পথে হামলাকারীরা পুনঃরায় তাঁর ওপর আক্রমন চালিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করেন এবং তাঁর বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, গত কিছুদিন আগে সে স্কুলে যাওয়ার পথে বখাটে রিপন এবং তার সহযোগী মিলন জোর পূর্বক তাকে গাড়িতে তুলে কুমিল্লায় নিয়ে যায়। একপর্যায়ে তারা তাকে অনৈতিক কাজের উদ্দেশ্যে অন্যত্র বিক্রির চেষ্টা চালায়। বিষয়টি সে টের পেয়ে ওই রাতেই কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন এই প্রতিনিধিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মুঠোফোনে জানান, এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা আমির হোসেন একটি মামলা রুজু করেছেন। তবে কেউ এখনও গ্রেপ্তার হয়নি। বিষয়টি সুষ্ঠ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: