নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার লাকসামে পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে হাত-পা এবং মুখ বাঁধা অবস্থায় নাছিমা আক্তার (২৪) নামে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার জেলার লাকসাম পৌর এলাকার গোপালপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে শাহ আলমের একটি পরিত্যক্ত বাড়ির টিনসেড ঘর থেকে ওই তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নাছিমা আক্তার কুমিল্লার লালমাই উপজেলার জয়নগর গ্রামের জয়নাব আলীর মেয়ে।

মরদেহ উদ্ধারের বিষয় নিশ্চিত করে লাকসাম থানার ওসি মনোজ কুমার দে জানান, ধারণা করা হচ্ছে ওই তরুণীর হাত-পা এবং মুখ বেঁধে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন মহিন উদ্দিন (৩৪) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

আটককৃত যুবক লাকসাম পৌর এলাকার দক্ষিণ বিনই নতুন বাড়ির মৃত আবদুল জলিলের ছেলে। সে হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামি।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পরিত্যক্ত বাড়ির টিনসেড ঘরের ভিতরে হাত-পা এবং মুখ বাঁধা অবস্থায় স্থানীয়রা মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

লাকসাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোজ কুমার দে বলেন, তরুণীর হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন প্রকাশ হলে ধর্ষণ ও হত্যার বিষয়টি স্পষ্ট হওয়া যাবে। এছাড়াও আইনগত ভাবে বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: