ডেস্ক রিপোর্টঃ প্রাইভেট পড়ানোর নামে কৌশলে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে কুমিল্লা সদর দক্ষিণের বিজয়পুর হাই স্কুলের শিক্ষক সাহেদ কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় যৌন হয়রানির অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় শুক্রবার সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। শিক্ষক নামের কলঙ্ক শাহেদের গ্রেফতারের খবরে কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে অভিভাবক ও স্থানীয়দের মাঝে।

জানা যায়, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার বিজয়পুর হাই স্কুলের শিক্ষক শাহেদ এর বাসায় সকাল ৭টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ওই স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী রিতা (ছদ্ম নাম) প্রাইভেট পড়াতো। গত বুধবার স্কুল বন্ধ থাকার সুযোগে ওই শিক্ষক প্রাইভেটের তিন ছাত্রী ছুটি দিয়ে রিতাকে (ছদ্ম নাম) আটকে রেখে যৌন হয়রানি করে।

শিক্ষক কর্তৃক ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী যৌন হয়রানির বিষয়টি অভিভাবক মহলে ছড়িয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিভাবকসহ স্থানীয়রা অভিযুক্ত শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে স্কুলে অবস্থান নেয়। স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির পক্ষ থেকে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের আশ^াসে স্থানীয়রা সাময়িক সময়ের জন্য শান্ত হয়। প্রাইভেট পড়ানোর নামে এ শিক্ষকের বিরুদ্ধে এর আগেও অনেক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ রয়েছে। শাহেদ গ্রেফতারের খবরে স্বস্তি ফিরেছে এলাকায়।

এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: নজরুল ইসলাম পিপিএম জানান, স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে শাহেদ নামের এক শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।