কুমিল্লায় একটি যাত্রীবাহী নৈশকোচে ডাকাতির ঘটনায় চালক ও সুপারভাইজারসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৫ মার্চ) গভীর রাতে মহাসড়কের কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম এলাকায় খাদিজা ভিআইপি পরিবহন নামের একটি বাসে এ ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার বিকেলে ভুক্তভোগী বাসযাত্রী বান্দরবান জেলার আলীকদম থানার আবুল কালাম বাদী হয়ে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় বাসের চালক আবু তালেব, সুপারভাইজার আরিফুর রহমান, হেলপার রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বাসের যাত্রী ঢাকার নিউ জুরাইন এলাকার বাসিন্দা রাব্বি, কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানার ওবায়েদুল্লাহ, ভোলার দৌলত খানের বাসিন্দা ইসমাইল, আলী কদমের বৃষ্টি বেগম ও আবুল কালাম জানান, ঢাকা থেকে কক্সবাজার অভিমুখী খাদিজা ভিআইপি পরিবহনের (১৫-৪০৭২) নৈশকোচ ৩০ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার সায়েদাবাদ থেকে যাত্রা করে। গভীর রাতে বাসটি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার মিয়া বাজার এলাকায় তাজমহল হোটেলে যাত্রা বিরতি করে। পুনরায় বাসটি কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে ওই হোটেল থেকে কিছুদূর গিয়ে লাইট বন্ধ করে চারজন লোক ওঠায়।

একপর্যায়ে সংঘবদ্ধ যাত্রীবেশী ডাকাতদল চালককে আসন থেকে তুলে নিজেদের মধ্যে একজন বাসটির নিয়ন্ত্রণ হাতে নেয়। অন্যান্য ডাকাতরা দেশীয় অস্ত্রের মুখে যাত্রীদের মারধর করে টাকা, মূল্যবান স্বর্ণালংকার, মোবাইলসহ অন্যান্য মালামাল লুটে নিয়ে গাড়ি থেকে নেমে যায়। এ সময় চালক-সুপারভাইজারের রহস্যজনক আচরণে ভুক্তভোগী যাত্রীরা বাসটি থামিয়ে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে ফেনী হাইওয়ে পুলিশ বাসটি জব্দ করে। পরে যাত্রীসহ বাসটিকে কুমিল্লা জেলা পুলিশকে বুঝিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজিম উল আহসান বলেন, সিসিটিভির ফুটেজ, যাত্রীদের বক্তব্য ও আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার রহস্য অনেকটা উন্মোচিত হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: