কুমিল্লার হোমনায় ফের পাগলা কুকুরের কামড়ে নারী-শিশুসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (৫ জুলাই) এশার নামাজের পর উপজেলার নিলখী গ্রামে একটি পাগলা কুকুরের কামড়ে তারা আহত হন। এ নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আহতরা হলেন- উপজেলার নিলখী গ্রামের সরাফত আলীর ছেলে মো. জুলহাস (৫০), জহির উদ্দিনের ছেলে মো. ইসমাইল (৪০), গোলাম মোস্তফার স্ত্রী ফজিলতের নেছা (৫৫), মৃত হাসমত আলীর ছেলে ময়নাল মিয়া (৩০), মো. রফিকুল ইসলামের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (১৭), তোফাজ্জল হোসেনের স্ত্রী বেলাতন নেছা (৫০), ছোট ঘাড়মোড়া গ্রামের সুমন মিয়ার ছেলে মো. ফাহিম (১০) মিরশ্বীকারী গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে মো. সাব মিয়া (৩৫)।

তাদের মধ্যে গুরুতর আহত জুলহাস মিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়।

উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাছিমা আক্তার রিনা জানান, সোমবার এশার নামাজের পর আমার পাশের বাড়ির বেলাতন নেছা বাথরুমে যাওয়ার সময় একটি সাদা রঙের পাগলা কুকুর তাকে কামড় দেয়। এরপর এই কুকুরটি যাকে সামনে পেয়েছে তাকেই কামড়িয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, কুকুরের কামড়ে হাসপাতালে আসা আটজনকে জলাতঙ্ক টিকার প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের হাতের আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন প্রায়, তাই তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৮ জুন দুপুরে একটি পাগলা কুকুরের কামড়ে একই এলাকায় অন্তত ২৪ জন নারী-পুরুষ আহত হয়। ওই ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী তাৎক্ষণিকভাবে কুকুরটিকে মেরে ফেলেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: