জেএসসি পরীক্ষা শেষ। ওমামা জোয়ার্দারের ইচ্ছা ঢাকায় গিয়ে বেড়াবে। সে লক্ষ্যে বড় ভাই মামুন জোয়ার্দারের মোটরসাইকেলে চড়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয় সে। চলতে চলতে হঠাৎ এক পথচারী চলে আসে মোটরসাইকেলের সামনে। তাকে বাঁচানোর জন্য ব্রেক কষতেই ভাইয়ের মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ছোট বোন ওমামা। মুহূর্তেই পেছন থেকে আসা একটি বাস পিষে দিলো তাকে। ঘটনাস্থলেই প্রাণ গেল ওমামা জোয়ার্দারের।

রোববার বিকেলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার গোবিন্দপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওমামা জোয়ার্দার মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ষোনটাকা গ্রামের জাহাঙ্গীর জোয়ার্দারের মেয়ে। বাবার ব্যবসার সুবাদে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলায় তাদের বসবাস। ওমামা পড়াশোনা করত পার্শ্ববর্তী নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার চাষিরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে।

নিহতের বড় ভাই মামুন জোয়ারর্দার বলেন, জেএসসি পরীক্ষা শেষ হওয়ায় রোববার আমার সঙ্গে বাইকে করে ঢাকায় বেড়াতে যাচ্ছিল ওমামা। পথে বাইক থেকে ছিটকে পড়ে যায় সে। এরপর লাল-সবুজ পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ওমামাকে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

চান্দিনা থানার ওসি মোহাম্মদ আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: