মুরাদনগরে কালবৈশাখী ঝড়ে গাছ চাপায় শিশু মিয়া (৬০) নামের এক বৃদ্ধর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় সিএনজি চালিত অটোরিক্সা চালক ও ৩ বছরের একটি শিশুসহ পাচঁ জন আহত হয়েছে।

বুধবার (২০ এপ্রিল) সকাল ৭ টার দিকে উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন শ্রীকাইল ইউনিয়নের সলফা গ্রামের রামচন্দ্রপুর-শ্রীকাইল সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশু মিয়া উপজেলার পূবধইর পূর্ব ইউনিয়নের খোশঘর গ্রামের মৃত্যু নায়েব আলীর ছেলে।

আহতরা হলেন, উপজেলার সরের পাড় গ্রামর আবুল কাশেমের ছেলে চালক সবুজ মিয়া (২৫), বি-বাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানার নীলক্ষী গ্রামের কাউছার মিয়ার মেয়ে ফাতেমা আক্তার (১৮), নিহত শিশু মিয়ার দুই মেয়ে নার্গিস বেগম (৩৫), শিল্পী আক্তার (২৫) ও শিল্পী আক্তারের ছেলে হোসাইন (৩)।

আহতদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বুধবার সকাল ৭টার দিকে ফাতেমা আক্তার ও নিহত শিশু মিয়া নাতীসহ তার দুই মেয়েকে নিয়ে একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সায় করে রামচন্দ্রপুর বাজার এলাকর আমিননগর থেকে ফরদাবাদ এলাকায় যাচ্ছিল। এসময় বুধবার ভোর সকাল থেকে চলে আসা কালবৈশাখী ঝড়ের গতি বেড়ে যাওয়ায় চলককে কিছু সময় অপেক্ষা করতে বলেন শিশু মিয়া। চালক শিশু মিয়ার কোন কথার কর্নপাত না করে সজরে সিএনজি চালিত অটোরিক্সাটি চালাতে থাকেন। মিনিট কয়েকের মধ্যে সলফা গ্রামে পৌছালে সড়কের পাশে থাকা গাছ ভেঙ্গে সিএনজি চালিত অটোরিক্সাটির উপর পড়ে। এ সময় গাছের নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় শিশু মিয়ার। পড়ে স্থানীয়রা এসে ঘটনাস্থল থেকে চালকসহ বাকি যাত্রীদের উদ্ধার করে মুরাদনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। আহতদের মধ্যে শিশু হোসাইনকে মূমুর্ষ অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: