লাকসামের নারয়নপুরে মাহফিলকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন সংবাদপত্র, ইউটিউব, সোশ্যাল মিডিয়ায় অপপ্রচারের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে বুধবার রাতে চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামীম এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

সংবাদ সম্মেলন তিনি বলেন, গত ৭ ফেব্রুয়ারী রাতে নারায়ণপুর মাদরাসা মাঠে প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে জামায়াত-শিবিরের লোকজন মাহফিলের আয়োজন করেন। এসময় ওই মাহফিলের প্রধান বক্তা মাওলানা হাসিবুর রহমান উত্তেজনামুলক বক্তব্য রাখেন। এর প্রতিবাদ করলে মাহফিলে দেয়া আমার বক্তব্যকে সুপার এডিটিং করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা হয়। এতে আমার সুনাম নষ্ট হয়েছে। আমি তার প্রতিবাদ জানাই।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন, গোবিন্দপুর ইউনিয়ন উত্তর আওয়ামীলীগের সভাপতি বেলায়েত হোসেন, দক্ষিণ সভাপতি হাজী নাজমুল হক, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন ও মাস্টার জাহাঙ্গীর আলম, নারায়নপুর মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এ্যাডভোকেট জাকির হোসেন লাতু, তারাপাইয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মাহমুদুর রহমান হাসিব, দোখাইয়া মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা ইদ্রিস মিয়া।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, গোবিন্দপুর হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, ইউনিয়ন আলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহজাহান সাজু, ইছাপুরা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল ফয়েজ, মোহাম্মদপুর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আবুল খায়ের, ইসলামী ফাউন্ডেশনের পরিচালক মোহাম্মদ জুয়েল, মাওলানা মনির হোসেন, সুরুজ মিয়া, প্যানেল চেয়ারম্যান কবির হোসেন, শ্যাম্ভু সাহা, সদস্য সাইফুল ইসলাম, শাহআলম, মশিউর আলম ইমন, জাহাঙ্গীর আলম, আবদুল হক, হুমায়ুন, শহিদ উল্লাহ, আবদুল বাসেক, আলমগির হোসেনসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: