ডেস্ক রিপোর্টঃ দেবীদ্বারে পরাজিত বিদ্যালয়ের খেলোয়ারদের হামলায় বিজয়ী বিদ্যালয়ের খেলোয়ার সহ অন্তত: ১২জন আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার বিকেলে দেবীদ্বার রেয়াজ উদ্দিন মডেল সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে।

প্রত্যক্ষ দর্শিরা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে দেবীদ্বার মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাথে দেবীদ্বার আজগর আলী মূন্সী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বালিকা কাবাডি দলের খেলা প্রতিযোগীতা ছিল। প্রতিযোগীতায় দেবীদ্বার মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় বিজয়ী হয়। খেলা শেষে বিজয়ী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর-খেলোয়াররা খেলার মাঠ ছেড়ে ফেরার পথে তাদের উপর পরাজিত বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অতর্কিত ইট- পাটকেল নিক্ষেপে হামলা চালায়।

এতে দেবীদ্বার মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মজিবুর রহমান, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন’র আম্পেয়ার মোঃ ময়নাল হোসেন, শিক্ষার্থী নাফিজা নূর স্বর্ণালী, মৌমিতা আক্তার, নাঈমা সুলতানা, তানজিনা আক্তার, মুন্নী আক্তার, তিথি, কাজল রেখা সহ অন্ততঃ ১২জন আহত হন। আহতদের দ্রুত দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়। আহতদের অধিকাংশই প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা নেয়ার পর বাড়ি চলে গেলেও মারাত্মক আহত শিক্ষার্থী নাফিজা নূর স্বর্ণালী, মৌমিতা আক্তারকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। হামলা চলাকালে আহত এবং হামলাকারীদের সূর- চিৎকারে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

>>আরো পড়ুনঃ  দুদুর বিরুদ্ধে কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগ নেতার মামলা

দেবীদ্বার মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মজিবুর রহমান জানান, গত ২ সেপ্টেম্বর থেকে আমাদের গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগীতা চলছে। এরই মধ্যে অর্থাৎ ২ সেপ্টেম্বর সকালে রেয়াজ উদ্দিন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাথে মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের হেন্ড বল খেলায় মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ৬-২ গোলে বিজয়ী এবং বিকেলে অনুষ্ঠিত হেন্ড বল খেলায় ৬-০ গোলে বিজয়ী হই। ৩ সেপ্টেম্বর আজগর আলী মূন্সী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাথে ২-০ গোলে এবং রেয়াজ উদ্দিন মডেল সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাথে ৫-২ গোলে বিজয়ী হন। আজও (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে রেয়াজ উদ্দিন মডেল সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাথে এবং বিকেলে আজগর আলী মূন্সী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাথে অনুষ্ঠিত কাবাডি খেলা প্রতিযোগীতায় উভয় বিদ্যালয়কে পরাজিত করে। মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় বিজয়ী হয়। ইতিমধ্যে অনুষ্ঠিত সকল খেলায় মফিজ উদ্দিন আহমেদ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অনুষ্ঠিত সকল খেলায় চেম্পিয়ন হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে আজগর আলী মূন্সী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ হামলা চালায়।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর উদ্বোধন

এব্যপারে সন্ধ্যায় আজগর আলী মূন্সী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও খেলার আহবায়ক মোঃ আলী আকবর’র সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমার বিদ্যালয়ের খেলোয়ারও শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ের বাউন্ডারীর ভেতরে ছিল, ওরা হামলা করেনি। হামলার সংবাদ শোনে দৌড়ে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। এসময় রেয়াজ উদ্দিন মডেল পাইলট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সবুর আহমেদও ছিলেন।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দেবীদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রবীন্দ্র চাকমা জানান, বিষয়টি শোনেছি, আজ মঙ্গলবার তদন্ত স্বাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান।