নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি বলেছেন,৭১ এর পরাজিত শত্রুরা এখনো ষড়যন্ত্র করছে। দেশের অগ্রযাত্রাকে রুখতে সেই দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীরা এখন তৎপরতা চালাচ্ছে। আমাদের দেশ স্বাধীন হওয়ার পর মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী হেনরী কিসিঞ্জার বাংলাদেশকে বলেছিল ‘বটমলেস বাস্কেট অথাৎ তলাবিহীন ঝুড়ি। সেদিন দেশী-বিদেশী চক্র ষড়যন্ত্র করে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বাঙ্গালীর স্বপ্নকে হত্যা করেছিল। পরতর্তীতে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিনত করতে তারা বাংলাদেশকে বারবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছে। বাংলাদেশকে একটি জঙ্গি রাষ্ট্র বানাতে চেয়েছিল তারা। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ২০০৮ সালের নির্বাচনে ভিশন- ২০২১ তুলে ধরে জাতিকে প্রত্যাশার আলো দেখিয়েছিলেন। আজকে শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্ব আজ বাংলাদেশ বিশ্বে মর্যাদার আসনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ আর দরিদ্র দেশের কাতারে নেই। এখন উন্নয়নশীল দেশ। মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আজ বলছেন ,উন্নয়ন কিভাবে করতে হয় তা দেখতে বাংলাদেশে যাও। বাংলাদেশ হচ্ছে বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। যারা একসময় বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলেছিল,তারাই এখন বলে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল বলছে। এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বেও কারণে। দেশের অগ্রযাত্রা রক্ষায় শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। গতকাল শুক্রবার ভিক্টোরিয়া কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি এসব কথা বলেন।

‘এসো মিলি প্রানের টানে’- এ শ্লোগানকে ধারন করে দক্ষিন-পূর্ব বাংলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ ভিক্টোরিয়া সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুর্ণমিলনী উৎসব ‘সমন্বয়’ গতকাল শুক্রবার বর্ণিল আয়োজনে ডিগ্রী শাখার ক্যাম্পাসে উদযাপিত হয়। এ উৎসবে নবীন-প্রবীন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় যোগ দেন দেশের বিভিন্ন সেক্টরে সুপ্রতিষ্ঠিত এ বিভাগের অসংখ্য কৃর্তি শিক্ষার্থী। সকালে উৎসবের উদ্বোধন করেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি। বক্তব্যের শুরুতে অনুষ্ঠানে আগত সকল প্রাক্তন এবং বর্তমান ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে এমপি বাহার বলেন, ভিক্টোরিয়া কলেজ কুমিল্লার একটি অন্যতম অহংকারের প্রতিষ্ঠান। এ কলেজের শিক্ষার্থীরা আজ সারা বিশে^ কুমিল্লার ঐতিহ্যে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। কুমিল্লাকে এগিয়ে নিচ্ছেন। শিক্ষা-সংস্কৃতির পাশাপশি অনেক ক্ষেত্রেই আজ কুমিল্লা এগিয়ে রয়েছে। কুমিল্লা বিভাগ বাস্তবায়ন সহ কুমিল্লাকে আরও এগিয়ে নিতে আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে।

বণীল এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর মো.রুহুল আমিন ভূইয়া,কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর রতন কুমার সাহা,সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আবদুর রশিদ, আদর্শ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এড.মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল, কলেজের উপাধক্ষ্য ড.মো.আবু তাহের,ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান প্রফেসর মো.আবুল কালাম,আদর্শ সদর উপজেলা ভাইস- চেয়ারম্যান তারিকুর রহমান জুয়েল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজন কমিটির আহবায়ক ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বদরুন নাহার। এ সময় বরুড়া শহীদ স্মৃতি কলেজের অধ্যক্ষ জহিরুল ইসলাম পাটোয়ারী,সাবেক সহযোগী অধ্যাপক ড.নিজামুল করিম সহ এ বিভাগের সাবেক শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মনোমুগ্ধকর অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় ছিলেন ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য সচিব এম.নাছিমুল ইসলাম হেলাল।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১১টায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ মাঠে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। দিনব্যাপী চার পর্বের অনুষ্ঠান শুরু হয় আলোচনা পর্বের মাধ্যমে। এতে সাবেক শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠানটি এক মিলনমেলায় পরিণত হয়। সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা পুনমিলনী অনুষ্ঠানটি উদযাপন করে এক অন্য রকম আনন্দঘন পরিবেশে। এদিকে বহুদিন পর দল বেঁধে প্রিয় ক্যাম্পাসে প্রবেশ, সম্মিলিত কণ্ঠে স্মৃতি জাগানিয়া গান, আনন্দঘন পরিবেশে স্মৃতিচারণ ও আড্ডায় মুখর একটি দিন কাটিয়েছে বিশেষ করে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা। বর্ণিল আয়োজন আর মনোমুগ্ধকর কথামালার ফুলঝুঁড়িতে নগরীর পশ্চিমাংশের শিক্ষা-সংস্কৃতি আর ইতিহাস-ঐতিহ্যের চারণভূমিখ্যাত ভিক্টোরিয়া মাঠে বসেছিল প্রাণের মিলনমেলা। সংবর্ধনা, স্মরণিকা প্রকাশ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্মৃতিচারণ, আড্ডা, র‌্যাফেল ড্র আর মেজবান আপ্যায়নসহ নানা বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন হয়। সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিল্পীরা গান পরিবেশন করে অনুষ্ঠানস্থল মাতিয়ে তোলেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: